ভৈরবের মেন্দিপুরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে সিএনজি চালক নিহত

প্রকাশিতঃ 6:19 pm | July 15, 2018


ভৈরব প্রতিনিধি :
ভৈরবের সাদেকপুর ইউনিয়নের মেন্দীপুর গ্রামে দুই দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে সিদ্দিক মিয়া (৪৮) নামে সিএনজি চালক নিহত হয়েছেন। রবিবার সকালে সিদ্দিক মিয়া মেন্দীপুর গ্রামের সিএনজি স্ট্যান্ডে গেলে মেন্দীপুর গ্রামের দোকানী লিটন মিয়ার মধ্যে সংঘর্ষ বাধলে । সংঘর্ষে লিটন মিয়ার লোকজনের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে সিদ্দিক মিয়া মারাত্মক আহত হয়। মুমুর্ষ অবস্থায় সিদ্দিক মিয়াকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেণ।

স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধায় মেন্দীপুর সিএনজি ষ্ট্যান্ডে লিটন মিয়া সিএনজি চালক সিদ্দিক মিয়াকে ভাড়ায় যেতে বলে। সিদ্দিক মিয়া ঐ মুহুর্তে ভাড়া যেতে অস্বীকার করে। এতে উভয়ের মধ্যে বাক বিতন্ডার এক পর্যায়ে হাতাহাতিতে রুপ নেয়। এ ঘটনায় উভয়ের পক্ষ থেকে পর দিন শনিবার শালিসী দরবারে বসার আশ্বাস দেন স্থানীয় মুরুব্বীগণ। কিন্তু পরবর্তীতে দোকানী লিটন মিয়ার পক্ষ থেকে শালিসী দরবার আরো দুই দিন পর হবে সিদ্দিক মিয়ার লোকজনকে জানানো হয়। পরে আজ রবিবার সকালে সিদ্দিক মিয়া তার সিএনজি নিয়ে ষ্ট্যান্ডে গেলে লিটন মিয়ার লোকজন ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতারী আঘাত করে মারাত্মক জখম করে। স্থানীয়রা মুমুর্ষ অবস্থায় সিদ্দিক মিয়াকে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। সিদ্দিক মিয়ার নিহতের খবর পেয়ে তার বাড়ির লোকজন মেন্দীপুর গ্রামে এসে বাড়ি ঘর ভাংচুর ও লোটপাট করেছে সরেজমিনে গিয়ে এমন অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের প্রায় অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়েছে।

এব্যাপারে সাদেকপুর ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ তোফাজ্জল হোসেনের সাথে কথা হলে তিনি জানান, বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান শেফাত উল্লাহর নির্দেশে তার সমর্থিত লোকজন হামলা চালালে সিদ্দিক মিয়া মারা যায়।

ভৈরব থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ মাজাহার জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে আমাদের পুলিশ ঘটনাস্থলে মোতায়েন রয়েছে এবং সিদ্দিক মিয়া নিহতের ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধিন রয়েছে।